পশ্চিমবঙ্গের বুদ্ধিজীবীদের কুকুরের মাংস খাওয়ার পরামর্শ দিলীপের

বারবার তুমুল বিতর্কিত কথার ঝড় উরাছেণ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ সোমবার তিনি বলেছিলেন, দেশী গরুর দুধে সোনা পাওয়া যায়৷ এও বলেছিলেন,বিদেশি গরু হাম্বা হাম্বা করে ডাকে না৷ রাজ্যজুড়ে তুমুল হইচই ফেলা দেওয়া তাঁর এই মন্তব্যের জের কাটার আগেই ফের বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন দিলীপ ঘোষ৷ তিনি বললেন, যেসব বুদ্ধিজীবীরা গোমাংস খেতে পছন্দ করেন, তাঁদের কুকুরের মাংস খাওয়া উচিত৷

গোমাংস খাওয়া নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে মাঝেমধ্যেই সরব হন বুদ্ধিজীবীদের একাংশ৷ তাদের নিশানা করে দিলীপ ঘোষ বলেছেন, “অনেক শিক্ষিত লোক রয়েছেন, যাঁরা রাস্তার ধারে গো মাংস খান। কেন শুধু গরু খান? তাঁরা তো কুকুরের মাংসও খেতে পারেন। অন্যান্য পশুর মাংসও খেতে পারেন। এটা স্বাস্থ্যের জন্য ভাল। কিন্তু নিজের বাড়িতে বসে খান। গরু আমাদের মা, গোহত্যাকারীদের সমাজবিরোধী হিসেবেই দেখি”।

বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলেন, কলকাতার রাস্তায় দাঁড়িয়ে গোরুর মাংস খাচ্ছে অনেকেই। কে কি খাবেন তা তাঁদের নিজস্ব ব্যাপার। কিন্তু তাঁরা বাড়িতে গিয়ে খেতে পারেন। রাস্তায় কেন? যার মা মারা যায় সেও গোরুর দুধ খেয়ে বেঁচে থাকে। কিন্তু গোরুকে হত্যা করা, তার মাংস খাওয়াকে সমাজবিরোধী কাজ হিসাবেই আমরা দেখি। এবং সেটাই দেখা উচিত বলে মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ।

সোমবার বর্ধমানে গরুর দুধ প্রসঙ্গে বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, “দেশি গরুর পিঠে কুঁজ রয়েছে। বিদেশি গরুদের পিঠে তা থাকে না। তাদের পিঠ মোষদের মত মসৃণ হয়। ওই কুঁজে ‘স্বর্ণ নাড়ি’ রয়েছে। যখন সূর্যের রশ্মি ওই কুঁজে এসে পড়ে, তখন সোনা তৈরি হয়। এ কারণেই দেশি গরুর দুধ হলদে রঙের হয়, হাল্কা সোনালী হয়। কারণ এতে সোনা রয়েছে। কেউ যদি শুধু দেশি গরুর দুধ খান, তাহলে আর কিছু খাওয়ার দরকার হবে না।”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button