আপাতত বন্ধ প্রচেষ্টার OTP, কবে চালু পুনরায়? ফর্ম বাতিলের কারণ ও লিস্ট, লাস্ট ডেট

শুরুতেই জানাই ইতিমধ্যে প্রচেষ্টা প্রকল্পের টাকা ঢোকা শুরু হয়ে গেছে

  • এতদিন পর্যন্ত খুবই কম মানুষজন ফর্ম ফিলাপ করতে পেরেছেন – কিন্তু যারা করেছেন এবং যাদের ভেরিফিকেশন সফল হয়েছে তাদের অনেকেই টাকা পেয়ে গেছে।কিন্তু একইভাবে ফর্ম বাতিল হয়েছে অনেক |

ফর্ম কাদের বাতিল হয়েছে, তাদের নামের বা ফোন নম্বরের একটা লিস্ট প্রকাশিত হবার কথা ছিল www.wb.gov.in 👈 এই ওয়েবসাইটে কিন্তু – তা এখনো প্রকাশিত হয়নি- কিন্তু ফর্ম বাতিল হয়েছে অনেক | তো এখানে কাদের ফর্ম বাতিল হতে পারে, আসুন জেনে নিই –

ফর্ম বাতিল হওয়ার কারণ –

১) যাদের প্রচুর জমিজমা রয়েছে তাদের টা বাতিল হয়েছে।

২) জয়েন্ট একাউন্টে যার ফার্স্ট নাম অর্থাৎ যে মেন তার নামে আবেদন না করে যারা সেকেন্ড নামে আবেদন করেছে, তাদের টা বাতিল হয়েছে

➤ এর পাশাপাশি, যারা আবেদন করেছেন কিন্তু ব্যাংক একাউন্ট অন্যের দিয়েছেন তাদেরও ফর্ম বাতিল।

ভারত সরকার অনুমোদিত প্যান কেন্দ্র খুলতে চান ? # CLICK HERE

৩) এক বাড়ির ২ জন ছেলে বা মেয়ে রয়েছে। সেক্ষেত্রে ১জন আবেদন করার পাশাপাশি আরেকজনও আবেদন করেছে, সেক্ষেত্রে তাদের ২ জনার ফর্ম বাতিল হয়েছে।
(কারন নোটিশে বলা হয়েছিল একটা পরিবার থেকে শুধুমাত্র ১জনই আবেদন করতে পারবে, যে (Source of Income)

৪) প্রচেষ্টারত প্রকল্পে আবেদন করতে গেলে অনেক সময় দেখায় “Only Wb” 👈 এর মানে কি?

  • যারা পশ্চিমবঙ্গ/WB বাইরের থেকে আবেদন করার চেষ্টা করছেন এটা তাদেরকেই শো করছে – এটা পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে যে আছেন বর্তমানে তারাই শুধু আবেদন করতে পারবে এই App এই মাধ্যমে।

৫) যারা পশ্চিমবঙ্গের বাইরের রাজ্যে আছেন তারা আবেদন করতে পারছেন না, তারা কি করছেন, তাদের আত্মীয় বা বন্ধু-বান্ধব যারা বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে রয়েছেন তাদের কি দিয়ে ফর্ম ফিলাপ করাচ্ছেন – সেক্ষেত্রে কিন্তু আপনার ফর্মটা বাতিল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে – কারন “স্নেহের পরশ” প্রকল্পে যারা ঠিক এইভাবে ফর্ম ফিলাপ করেছিলেন, তাদের ফর্ম কিন্তু বাতিল হয়েছে।

৬) ধরুন, কারোর পরিবারে ৩জন পুরুষ বাবা ও ২ ছেলে –
সেক্ষেত্রে, বাবা আবেদন করল এবং ছেলে ২টি যদি অবিবাহিত হয় তাহলে তারা আর আলাদা করে আবেদন করতে পারবে না – যদি করেন তাহলে তাদের সবকটা ফর্ম বাতিল হবে।

➤ এক্ষেত্রে যদি ওই ২ছেলের মধ্যে কেউ একজন বিবাহিত হন তাহলে সে আলাদা করে আবেদন করতে পারবেন।
কিন্তু অবিবাহিত হলে পারবেন না।

৭) যারা স্নেহের পরশ প্রকল্পে আবেদন করেছেন তারা এই প্রকল্পে আবেদন করলে কিন্তু ফর্ম বাতিল হবে।

৮) ফর্ম ফিলাপ করার সময় আপনার “Occupation” Choose করার একটা অপশন ছিল – তো এখানে যারা Business, Job এসব লিখেছেন তাদের আবেদন বাতিল, যারা দিনমজুর বা Day-labour লিখেছিলেন তারা অনেকেই সত্যিই তাই না, তো তাদের টা বাতিল।

➤ তো এখন কথা হচ্ছে, তারা যে বাতিল করছে, ভেরিফিকেশন করছে কিভাবে এবং বাতিল করছে কিসের উপর ভিত্তি করে, তারা জানছে কিভাবে বা ইনফরমেশন পাচ্ছে কিভাবে?

  • আপনার পঞ্চায়েত বা মিউনিসিপ্যালিটি বা আপনার Area Councilor এর কাছ থেকে ভেরিফিকেশন করছে।

➤ প্রচেষ্টা প্রকল্পের লাস্ট ডেট কবে?

  • ১৫ই মে।

➤ আর কি আবেদন হবে না?

  • প্রচেষ্টা App টি লঞ্চ হওয়ার প্রথম দিকে অনেকবার চেষ্টা করার পর OTP আসছিল, কিন্তু বর্তমানে গত কয়েকদিনে আর OTP আসছে না, এবং ফর্ম ফিলাপও হচ্ছে না
    এখন ১৫ই মে পর্যন্ত অপেক্ষা করা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।

➤ যারা একটা ফোন থেকে একাধিক আবেদন করেছেন – তাদের ফর্ম বাতিল হবে কিনা এই নিয়ে কোনো সুস্পষ্ট তথ্য অফিশিয়াল নোটিশে বলা হয়নি।

➤ এমন অনেকে আছে যারা নিরক্ষর, অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ তো দূরে থাক তারা সই করতে জানে না, আবার এদিকে App এ ফোনের ডিসপ্লে-এর উপরে সই করতে হচ্ছে।

➤ App এর সার্ভার প্রব্লেম চলছে।

➤ ফর্ম ফিলাপ করতে পারেন নি বেশীরভাগ মানুষজন
এরকম প্রচুর অভিযোগ জমা হয়েছে এই App কে নিয়ে – এখন দেখা যাক এই App কে নিয়ে কি স্টেপ নেয়া হয়।

এই App টিকে সংশোধন করে সার্ভার প্রব্লেম ঠিক করা হবে?
নাকি এর বিকল্প কিছু চালু হবে?
যদি ঠিক হয় তাহলে কবে থেকে আপনারা আবেদন করতে পারবেন – এই সব পরবর্তী আপডেট আপনারা এই চ্যানেলে পেয়ে যাবেন |

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button