চীনের বিরুদ্ধে একজোট হচ্ছে আমেরিকাবাসী, কি করতে চলেছে আমেরিকাবাসী দেখুন

করোনা (COVID-19) পরিস্থিতিতে সমগ্র বিশ্ব আতঙ্কিত হয়ে রয়েছে। বিশ্বের সুপার পাওয়ার আমেরিকাও (America) এই মারণরোগের প্রকোপে পড়ে বর্তমানে ভীষণ দুর্বল হয়ে পড়েছে। আমেরিকায় এখনও অবধি করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষা ছাড়িয়ে আড়াই লক্ষের কাছাকাছি। এবং মৃতের সংখ্যা ৬ হাজার পার করেছে। এই পরিস্থিতিতে আমেরিকার গোপন সূত্রের দাবী করোনা ভাইরাসের ফলে চীন (Chaina) যে পরিমাণ মৃতের সংখ্যা প্রকাশ করেছে, তা অনেক কম। এই বিষয়ে চীন সঠিক তথ্য বিশ্বকে দিচ্ছে না। চীনের দেওয়া তথ্যের থেকেও বেশি পরিমাণে মানুষ সেখানে মারা গেছে বলে দাবী করছে আমেরিকা।

এই ঘটনার পাশাপাশি CIA দাবী করছে, করোনা ভাইরাসের ফলে সঠিক মৃতের তথ্য চীন সরকার নিজেও জানেন না। উহান প্রদেশের কমিউনিস্ট পার্টির ভয়ে তারা সঠিক তথ্যটা সবার সামনে আনছে না। ট্রাম্প অনেক আগেই এই বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। আর এখন ট্রাম্প বলছেন, করোনা পরিস্থিতি স্থির হয়ে গেলে আমেরিকা, চীনকে একটি উচিত শিক্ষা দেবে।

সম্প্রতি ট্রাম্প সরকার করোনা বিষয়ে আমেরিকাকে একটি সতর্ক বার্তা দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, আমেরিকায় করোনা ভাইরাসের ফলে ২-২.৫ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হতে পারে। এবং আসন্ন দুই সপ্তাহ সকলের কাছেই খুবই আশঙ্কাজনক হতে পারে। ট্রাম্প সরকারের দাবী, চীন সময় থাকতে বিশ্বকে করোনা ভাইরাসের বিষয়ে না জানানোয়, আমেরিকাতে এখন এই পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

আমেরিকার এখন লক্ষ তাঁদের দেশকে করোনা মুক্ত করা। এবং করোনা পরিস্থিতি সামলে উঠেই তারা চীনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে। আমেরিকার সাংসদ আগেই চীন এবং WHO এর যোগাযোগ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। WHO আমেরিকার অর্থ নিয়ে চীনের সঙ্গে মিলিত ভাবে বিশ্বের ক্ষতি করছে। এখন এই সংস্থার বিষয়ে নজরদারি করতে হবে।

এছাড়াও আমেরিকার এক জেলায় এক ল ফার্ম এই করোনা ভাইরাস আমেরিকায় ছড়ানোর জন্য চীনের বিরুদ্ধে ২০ ট্রিলিয়ন ইউএস ডলাররে ক্ষতিপূরণ দাবী করে মামলা করেছে। এর ফলে আমেরিকাবাসী একত্রিতভাবে চীনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button